নোয়াখালীর ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক

নোয়াখালীর ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক
নোয়াখালীর ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক
নোয়াখালীর ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক
নোয়াখালীর ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক
নোয়াখালী জেলাটি প্রাকৃতিক দর্শনীয় স্থানে ভরপুর এবং অসাধারণ সুন্দর সুন্দর দ্বীপবেষ্টিত। তবে, সম্পূর্ণ বেসরকারী উদ্যোগে সম্প্রতি নোয়াখালী জেলার ধর্মপুর গ্রামে ২৫ একর জায়গার ওপর গড়ে উঠছে নোয়াখালী ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক। সব বয়সী মানুষকে একটু ব্যতিক্রমী বিনোদন দিতেই এই পার্কটি গড়ে তোলা হয়েছে। পার্কটি নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশেই অবস্থিত। পার্কে আছে পুরো সময়টি উপভোগের নানা উপাদান। যারা একটু অ্যাডভেঞ্চার পছন্দ করে তাদের জন্য রয়েছে নাগরদোলা বা হেলিকপ্টার রাইড; পারিবারিকভাবে উপভোগের জন্য রয়েছে প্যাডেল বোট, ফ্যামিলি ট্রেন। বাচ্চাদের জন্য রয়েছে সুইচ চেয়ার, সোয়ান বোট, মেরি গো রাউন্ড, কিডস ট্রেন, ফেরিস হুইল ও বাম্পার কার। পরিবারের সবাইকে নিয়ে পুরো দিন দারুণ সময় কাটাতে পারবেন এই পার্কে। আপনার আনন্দকে আরও বাড়িয়ে দিতে পারে সুইমিংপুল আর কৃত্রিম ঝর্ণা। লেকের পাশে বসেও নির্মল বাতাস উপভোগ করতে পারেন। বন্ধু-বান্ধব বা পরিবারের সাথে যেমন দারুণ সময় কাটাতে পারবেন তেমনি যদি বন্ধুদের নিয়ে পিকনিক করতে চান বা বড় কোন গেট টুগেদার আয়োজন করতে চান তার ব্যবস্থাও রেখেছে কর্তৃপক্ষ। আছে কার পার্কিংয়ের সুব্যবস্থা। আছে নানা ধরনের খাবার ও স্নাক্সের ব্যবস্থা। ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্ক সপ্তাহের প্রতিদিনই খোলা থাকে। সকাল ৯:৩০ মিনিট থেকে ৬:৩০ মিনিট পর্যন্ত আপনি এখানে আনন্দময় কিছু সময় কাটিয়ে আসতে পারবেন। শুধুমাত্র প্রবেশের সময় টিকিটের দাম ১৫০ টাকা। তবে, যদি পিকনিকে যেতে চান বা ফ্যামিলির সবাই মিলে ঘুরতে যান এবং পেতে চান বিশেষ সুবিধা, তাহলে আগে থেকেই কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে। ফ্যামিলি প্যাকেজ বা তিন ধরনের পিকনিক প্যাকেজের কোনটি নিলে আপনার জন্য তা হবে সাশ্রয়ী। যেভাবে যাবেন : ঢাকা থেকে ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্কে যেতে হলে আপনাকে প্রথমে যেতে হবে নোয়াখালী সদরে। ঢাকার সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড থেকে হিমাচল এক্সপ্রেস, একুশে এক্সপ্রেস, মুনলাইট নামের গাড়ি কিছুক্ষণ পর পর ছেড়ে যায়। ধানমন্ডির জিগাতলা বাসস্ট্যান্ড থেকে রাতেও নোয়াখালীর বাস পাবেন। ভাড়া ননএসি ৫০০ টাকা আর এসি ১ হাজার টাকা। নোয়াখালী ড্রিম ওয়ার্ল্ড পার্কটি নোয়াখালী শহর থেকে মাত্র ৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। নোয়াখালী শহর থেকে সিএনজি বা অটোরিক্সাতে সহজেই পৌঁছে যেতে পারেন পার্কে।