হবিগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলা

আত্মগোপনে চেয়ারম্যান, সহযোগী গ্রেফতার

হবিগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলা
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার একটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান (বাঁয়ে) ও তার সহযোগী খালেদ ঢাকা ট্রিবিউন

স্বজনদের দাবি, কোথাও তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় তিন সাংবাদিককে মারধরের পর গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে করেছেন স্থানীয় আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন। রাতভর অভিযান চালিয়ে তকে গ্রেফতার করতে না পারলেও সহযোগী খালেদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (০২ এপ্রিল) রাত ১২টার দিকে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় চেয়ারম্যান মহিবুর রহমানসহ ১০জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন একটি জাতীয় দৈনিকের নবীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি মুজিবুর রহমান।

মামলার পরই নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, অপারেশন) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ চেয়ারম্যানের বাড়ি ও তার গ্রাম মিনাজপুরে অভিযান চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ আসার আগেই পালিয়ে যান তিনি। তবে তার সহযোগী খালেদকে গ্রেফতার করা হয়। চেয়ারম্যান মহিবুর রহমানের মালিকানাধীন অরবিট হাসপাতালের ম্যানেজার সে।

এদিকে, অভিযানের খবর পেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে আত্মগোপনে রয়েছেন ইউপি চেয়ারমান হারুন। স্বজনদের দাবি, কোথাও তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

তবে পুলিশ বলছে, তিনি পুলিশের ভয়ে পালিয়ে গেছেন।

অভিযান ও গ্রেফতারের বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুর রহমান।

তিনি জানান, খালেদকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। চেয়ারম্যানসহ অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

নবীগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বিশ্বজিৎ কুমার পাল বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান ফৌজদারী অপরাধ করেছেন। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এক অভিযুক্তকে ধরেছে পুলিশ। ইউপি চেয়ামর‌্যান আটক কিংবা পুলিশের চার্জশিট অনুযায়ী অভিযুক্ত হলে তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হবে।

উল্লেখ্য, হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভ প্রচার করায় বুধবার ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুল ও তার লোকজন তিন সাংবাদিকসহ ৫ জনকে মারধর করেন।

এ ঘটনার পর থেকেই স্থানীয় সাংবাদিকদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইউপি চেয়ারম্যান হারুনকে গ্রেফতারের দাবি জানান সাংবাদিক নেতারা।